মালিহার নানাবাড়ি

sonalibangla24.comsonalibangla24.com
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  05:02 AM, 13 November 2020

ইমরান খান রাজ

হঠাৎ স্কুলের দপ্তরি ক্লাসরুমে ঢুকে স্যারকে বললেন, স্যার একটা নোটিশ ছিলো। স্যার শিক্ষার্থীদের উদ্দ্যেশ্যে নোটিশ পড়ে শোনালেন। নোটিশ শুনে ক্লাসের সকল শিক্ষার্থী খুশিতে আত্মহারা হয়ে পড়লো৷ কারন, নোটিশে ছিলো আগামী তিন দিন স্কুল ছুটির ঘোষণা। ঐদিন স্কুল শেষে বন্ধুদের সাথে বাড়ির দিকে রওনা হয় মালিহা। ছোটবেলা থেকেই খুব দুরন্ত স্বভাবের মেয়ে মালিহা৷ এখন সে ক্লাস থ্রি’তে পড়ে৷ বাড়িতে পৌঁছেই দৌড়ে মায়ের কাছে গিয়ে স্কুল বন্ধের কথা জানায় এবং সেইসাথে বায়না করে যে, এবারের ছুটিতে তাঁকে নানাবাড়ি বেড়াতে নিয়ে যেতেই হবে৷ নাছোড়বান্দা মেয়ের কথায় অবশেষে রাজি হয় মা৷ আগামীকাল তাঁরা বেড়াতে যাবে বলে সম্মতি দেয় মালিহার আম্মু। নানাবাড়ি গিয়ে মামা আর খালামনিদের সাথে কতরকম খেলা খেলবে আর কোথায় কোথায় ঘুরতে যাবে এসব ভাবতে ভাবতে মালিহার সারারাত কেটে যায়৷

পরদিন সকালে ঘুম থেকে উঠে গোসল সেরে রেডি হয়ে মায়ের সাথে রওনা দেয় নানাবাড়ি যাওয়ার উদ্দেশ্যে। সাথে নিজের সবচেয়ে প্রিয় পুতুলটি নেয় মালিহা। ছোটবেলা থেকেই এই পুতুলের উপর বিশেষ আকর্ষণ রয়েছে তাঁর। খাওয়ার সময়, ঘুমানোর সময়, পড়ার সময় তাঁর সাথে এই প্রিয় পুতুলটা থাকবেই। বাসস্ট্যান্ডে অনেকক্ষণ বাসের অপেক্ষায় দাঁড়িয়ে থাকার পর অবশেষে বাস এসে থামে তাঁদের সামনে। বাসে উঠে মায়ের সাথে নানাবাড়ি নিয়ে বিভিন্ন গল্প করতে থাকে মালিহা৷ বাসে প্রায় দুই ঘন্টার জার্নি। বাস থেকে নেমে রিক্সায় মাত্র পাঁচ মিনিটের পথ নানাবাড়ি যেতে।

প্রায় দুই ঘন্টা বাস জার্নির পর অবশেষে তাঁরা নানাবাড়ির কাছাকাছি পৌঁছে যায়। এখন এখান থেকে রিক্সায় উঠে পাঁচ মিনিটের মধ্যেই পৌঁছে যাবে গন্তব্যে। বাস থেকে নেমে রিক্সায় উঠার জন্য মালিহার হাত ধরে রাস্তা পাড়াপাড় হচ্ছিলো তাঁর আম্মু। হঠাৎ মালিহার এক হাত থেকে তাঁর প্রিয় পুতুলটা পড়ে যায় রাস্তার মাঝখানে। প্রিয় পুতুলটা কুড়িয়ে আনতে মায়ের হাত ছেরে রাস্তার মাঝে দৌড়ে যায় মালিহা। পড়ে থাকা পুতুলটা হাতে নিয়ে মায়ের দিকে তাকাতেই অপরদিক থেকে আসা একটি বাস মালিহার উপর দিয়ে চলে যায় !

এক নিমিষেই প্রাণহীন হয়ে মালিহার নিথর দেহ পড়ে থাকে রাস্তার এক কোনে ! তাঁর মা এক চিৎকারে নিরব নিস্তব্ধ হয়ে দাঁড়িয়ে থাকে ! আশেপাশের লোকজন দৌড়ে গিয়ে বাস চালককে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে৷ মালিহার নানাবাড়ি যাওয়ার স্বপ্নটা স্বপ্নই থেকে যায় ! মামা আর খালামনিদের সাথে আর কোনদিন খেলবে না মালিহা !

আপনার মতামত লিখুন :